বাঞ্ছারামপুর ফরদাবাদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রাশিদুল ইসলাম রাশেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার ফরদাবাদ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দৌঁড়ে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছেন রাশিদুল ইসলাম রাশেদ। বাঞ্ছারামপুর উপজেলার মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ ইউনিয়ন হলো ফরদাবাদ। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জমে উঠেছে ফরদাবাদের শান্তির বাজার, রবির বাজার, শেখ হাসিনা সেতু, চরলহনীয়, পূর্বহাটি, নিজকান্দি, কলাকান্দি ও গাওরাটুলির প্রতিটি অলিগলি পাড়া মহল্লা। আওয়ামী লীগের পাশাপাশি এই ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থীরাও কৌশলে মাঠে নেমে পড়েছে।

২০২১ সালের মার্চে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে ফরদাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা বিভিন্নভাবে প্রচার প্রচারণা শুরু করায় পুরো ইউনিয়নেই নানা জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছে। বিশেষ করে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নিয়ে।

এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর তালিকা দীর্ঘ হলেও এখন পর্যন্ত জনমত জরিপে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে অবস্থান করছেন মো. রাশিদুল ইসলাম রাশেদ। বাঞ্ছারামপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকসেস গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল ইসলাম রাশেদ ইতোমধ্যে তার সামাজিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে এলাকাবাসীর বিশ্বাস ও আস্থায় পরিণত হয়েছেন। বিশেষ করে করোনার দুঃসময়ে সাধারণ মানুষের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে তিনি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

নিজের জীবনের উপর ঝুঁকি নিয়ে চাল, ডাল, তেল, লবণ, আলু, পেঁয়াজ সহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছেন। আর সেই কারণেই ফরদাবাদ ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ রাশেদের পক্ষে মাঠে নেমে পড়েছে।

যারফলে পুরো ইউনিয়নেই তরুণ প্রজন্মের অহংকার রাশেদ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। বাঞ্ছারামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষমহলও রাশেদের প্রতি বেশ সন্তুষ্ঠ ও আস্থাশীল। বিভিন্নভাবে এলাকার মানুষ ও মানবতার প্রতি রাশেদের ভালবাসা ও সহমর্মিতা প্রকাশ পেয়েছে। ফলে দিনেদিনে ফরদাবাদ ইউনিয়নে রাশেদের জোয়ার বেড়েই চলেছে। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী রাশিদুল ইসলাম রাশেদ ফরদাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারলে উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে এলাকাকে দ্রুত সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

সেই সাথে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণের পাশাপাশি ক্যাপ্টেন এ বি তাজুল ইসলামের স্বপ্নের ফরদাবাদ ইউনিয়ন গড়ে তুলবেন। আর সেই লক্ষ্যেই তিনি এলাকার মাটি ও মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*