মহামারির এই বন্ধে কিভাবে সময় কাটাবেন

বিডিনিউজপ্রতিদিন: কোভিড-১৯ এর মহামারির এই সময়ে অনেকেই আমরা ঘরে বসে সময় কাটাচ্ছি। আজ কয়েকদিন কেটে গেলো, হয়তো আরও কয়েক সপ্তাহ ঘরে থেকে কাটাতে হবে। এটা প্রয়োজন আপনার নিজেকে, আপনার পরিবারকে, একটা জাতিকে এই বিপদ থেকে বাঁচাতে। কারণ মানুষে মানুষে সংযোগ/সংস্পর্শ কম হলেই এই রোগের প্রাদুর্ভাব কমে আসবে, ফিরে পাবেন আমাদের পূর্বের কোলাহলমুখর পৃথিবী। আসুন এই কয়েকদিন ঘরে বসে কি করবেন এর একটা তালিকা করে ফেলি। ভালো থাকুক শরীর, ভালো থাকুক মন।

১. ঘরের কাজে মনযোগী হউনঃ আগে ঘরের অনেক কাজ হয়তো অন্য কেউ করতো, এখন নিজে করুন। দেখবেন অনেক কাজই বেরিয়ে আসবে। ঘরের বিভিন্ন জায়গার ময়লা পরিষ্কার করুন বা জায়গাটি সুন্দর করে গুছিয়ে ফেলুন যেমন টেলিভিশন, কম্পিউটার, আসবাবপত্র, বইয়ের শেল্ফ, ইত্যাদি। বাচচাদের পড়ার টেবিলটি সবসময়ই অগোছালো থাকে, বাচচাদের নিয়ে ঠিক করে ফেলুন।

২. বাগান করুনঃ যাদের ছাদে বা বাগানে গাছ আছে তাদের একটু যত্ন নিন। গাছের আগাছা পরিষ্কার করা, পানি দেয়া, সার দেয়া, মাটি ঠিক করে দেয়া ইত্যাদি যে কাজগুলো সচরাচর করা হয়ে উঠে না, তা করুন। শরীরেরও খানিকটা ব্যায়াম হবে, গাছগুলিও দেখবেন প্রাণ ফিরে পাবে।

৩. ব্যায়াম করুনঃ আমরা অনেকেই দৈনন্দিন ব্যস্ততার কারণে ব্যায়াম করতে পারি না। দিনের একটি নির্দিষ্ট সময়ে ব্যায়াম করুন, শরীর ও মন দুটোই ভালো থাকবে। নির্দিষ্ট ব্যায়াম করতে পারেন অথবা একঘেয়ে লাগলে জুম্বা ড্যান্স বা কোনো নাচও করতে পারেন। যখন প্রাত্যহিক জীবনে ফেরত যাবেন, এই অভ্যাসটি বজায় রাখুন।

৪. ভার্চুয়াল দুনিয়ায় সময় কাটানঃ ভার্চুয়াল দুনিয়ায় অনেক শিক্ষামূলক, বিনোদনমূলক, ক্রীড়াবিষয়ক ভিডিও আছে, সেগুলো দেখুন। ‘গুগল আর্থ’ এর মাধ্যমে বিশ্বপ্রকৃতিকে Live দেখুন অথবা Death Valley National Park, Glacier National Park, Grand Canyon National Park এর sites গুলো ঘুরে আসুন। বিশ্ববিখ্যাত Sun Diego Zoo তার প্রাণীদের সরাসরি দেখাচ্ছে, ঠিক তেমনি Monterrey Bay Aquarium। একটি নতুন দেশ দেখুন অনলাইন এ, বাচ্চারাও ওই জায়গার সম্বন্ধে জানতে পারবে অথবা হতে পারে কোনো দর্শনীয় স্থান।

৫. সিনেমা/গান তো আছেইঃ পছন্দের সিনেমা বা গান দেখুন বা শুনুন। হয়তো আপনি থ্রিলার প্রেমিক বা বাউল গানের পোকা। এতদিন হয়তো সময়ের অভাবে এই ঘরানার অনেক কিছুই দেখতে বা শুনতে পেতেন না। এখন এই বন্ধে এই গ্রুপের সব ছবি দেখার বা সব গান শুনার চেষ্টা করুন। সময়টা ভালোই যাবে।

৬. বই পড়ুনঃ অভ্যাস বই পড়ার, বইয়ের শেল্ফ এর একটা একটা বই পড়তে থাকুন। এখন অনলাইনেও অনেক বই/প্রবন্ধ পাওয়া যায়, যা ভালো লাগে পড়ে ফেলুন। যদি আগ্রহ থাকে গবেষণা বিষয়ক, তাইলে বিভিন্ন গবেষণামূলক প্রবন্ধ পড়ুন এবং জানুন।

৭. পরিবারের সবার সাথে গল্প করুনঃ সবার সাথে সম্পর্কটা আরো মজার করুন। স্বামী/স্ত্রী, বাচ্চা, বাসার বড়দের সাথে কথা বলুন অনেকক্ষণ, কারণ এখনতো সময়ের অভাব নেই।

৮. অল্প-স্বল্প রান্নাবান্নাঃ YouTube, Better Homes and Gardens, BBC তে অনেক রান্নার ভিডিও আছে আর তা দেখে শিখে নিতে পারেন নতুন রান্নার রেসিপি। বানিয়ে ফেলুন ঝটপট সুস্বাদু সব খাবার। বাচ্চারাও খুব খুশি হবে আর আপনারও রান্নার হাতটা পরিপক্ক হয়ে যাবে।

৯. বাচ্চাদের ব্যস্ত রাখুনঃ বাচ্চাদের নতুন খেলা (indoor games) শিখান অথবা কোন হস্ত-শিল্প। সাথে চলুক স্কুলের পড়াশোনা। বাচ্চাদের ব্যস্ত ও উদ্দীপ্ত রাখাটা খুবই জরুরী।

১০. মন প্রফুল্ল রাখতে যোগব্যায়াম/ধ্যান করুনঃ যোগব্যায়াম/ধ্যান হতে পারে আপনার প্রতিদিনের নিত্যসঙ্গী। একটি চুপচাপ জায়গা বের করুন, মনকে দুশ্চিন্তামুক্ত করে যোগব্যায়াম/ধ্যানে বসে পড়ুন।

১১. বাজাতে পারেন কোনো যন্ত্রঃ যদি সঙ্গীতের কোনো যন্ত্র শিখতে চান, এটাই সময়। ঘরে থাকা হারমোনিয়াম, গীটার বা বাঁশি শিখে নিতে পারেন। এইসব যন্ত্র শিখার জন্য ইউটিউব-এ পেয়ে যাবেন ভিডিও। আছে অনলাইন কোর্সও, যেমন গীটার শিখার জন্য বিনামূল্যে পাঠ পেয়ে যাবেন Fender এ।

১২. ধর্মপালন বা ধর্ম সমবন্ধে জানুনঃ ধর্মীয় রীতিনীতি পালন বা ধর্মীয় বিধি-বিধান সম্বন্ধে জ্ঞানলাভ করুন। ধর্মীয় অনেক বিষয় হয়তো শুনেছেন, এখন নিজেই তা পড়ুন। পরিশেষে, সারাদিন ঘরে বসে কাটানো অনেক কঠিন, তবে এই দুর্যোগের সময় চ্যালেঞ্জটি আপনাকে নিতেই হবে। হয়তো কোনো চিকিৎসক আপনার সুস্থতার জন্য হাসপাতালে আছেন। আর আপনি শুধুমাত্র ঘরে থেকে সময়টাকে উপভোগ করুন এবং কোরোনা ভাইরাসের সংক্রমণকে প্রতিহত করুন।

লেখকঃ ডাঃ অমিতাভ বনিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, এ্যাসিস্টেন্ট প্রফেসর, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ঢাকা। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*