ক্যাপ্টেন এ বি তাজুল ইসলাম এমপির জীবন বৃত্তান্ত

কাজী খলিলুর রহমান: ক্যাপ্টেন এ বি তাজুল ইসলাম (অব.) ৫ মে ১৯৫১ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। মরহুম মৌলভী রফিক উদ্দিন আহমেদ ও মরহুমা মোসাম্মাৎ পরিবানুর পুত্র এ বি তাজুল ইসলাম ১৯৬৬ সালে মেট্রিক, ১৯৬৮ সালে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিষয়ে ভর্তি হন।

ক্যাপ্টেন তাজুল ইসলাম (অব.) এর জীবন ঘটনাবহুল। তিনি স্বাধীনতা সংগ্রামে সশরীরে অংশগ্রহণ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যায়নকালে তিনি পাকিস্তান বিমান বাহিনীতে জিডি পাইলট হিসেবে যোগদানের যোগ্যতা অর্জন করেন। এ সময় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের পক্ষ হতে স্বাধীনতা সংগ্রামের ডাক আসে।

সে ডাকে সাড়া দিয়ে ক্যাপ্টেন তাজুল ইসলাম মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। তিনি ৩ নং সেক্টরে জেনারেল শফিউল্লাহর অধীনে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।

১৯৭৫ সালে জাতির জনকের হত্যার পর হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে সশস্ত্র অভ্যুত্থানে অংশগ্রহণ করেন। ফলশ্র“তিতে, তিনি গ্রেফতার হন এবং ১৯৭৬ সালে প্রিমেচিউর রিটায়ার্মেন্টে যেতে বাধ্য হন। পরবর্তীতে তিনি ব্যবসায় ও রাজনীতিতে আত্মনিয়োগ করেন।

১৯৮৪ সালে তিনি বাঞ্ছারামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপসম্পাদক নির্বাচিত হন, একই সাথে তিনি দলের শিল্প ও বাণিজ্য কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন।

পরবর্তীতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক পদ তৈরির পর তিনি প্রথম সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে প্রথমবারের মতো তিনি জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০৮ সালে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ আসন হতে পুনরায় নির্বাচিত হোন।

৬ জানুয়ারি ২০০৯ তিনি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন। ৫ জানুয়ারি ২০১৫ তিনি পুনরায় নির্বাচিত হোন এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সভাপতির দায়িত্ব হিসেবে নিযুক্ত হন। ৩০ শে ডিসেম্বর ২০১৮ তিনি আবারো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সভাপতির দায়িত্ব হিসেবে নিযুক্ত রয়েছে।

তথ্য সূত্র: উইকিপিডিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*