দ:কোরিয়ায় আন্তর্জাতিক কোরআন তেলোয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত।

বিডিনিউজ প্রতিদিন: গত রবিবার ১৯ মে, ইথেওন কেন্দ্রীয় মসজিদে দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় সামাজিক সংগঠন ইসো আয়োজিত আন্তর্জাতিক কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামিক সংগীত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় দুইমাসব্যাপী আন্তর্জাতিক কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতায় ৮টি মসজিদে বাছাই পর্ব শেষে ১৯ মে রবিবার ইথেওন মসজিদে গ্রান্ড ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়। দক্ষিণ কোরিয়ায় বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশী ছাড়াও বিভিন্ন দেশের মুসলিমদের স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহণ নিতে দেখা যায় এই প্রতিযোগিতায় ।

১ম অধিবেশন সকাল ৯ টা থেকে ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শুরু হয়ে বিভিন্ন দেশের প্রতিযোগীগন অংশগ্রহণ করে। ২য় অধিবেশন পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত এ বিভিন্ন দেশের প্রতিযোগীগণ অংশগ্রহণ করে। বিভিন্ন দেশের বিচারকদের সমন্বয়ে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামিক সংগীত প্রতিযোগীতা চলে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত।

ইসলামিক সংগীতে বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে মারুফ আব্দুল্লাহ, শিল্পী,সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী ও আব্দুল হালিম সহ পরিচালক,অভিযাত্রী শিল্পী গোষ্ঠী। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করে মাওঃ মমতাজুল হক, ইমাম ও খতিব,আনসান মসজিদ। ক্বারী আব্দুর রহমান মিশরী, প্রাক্তন ইমাম,আনসান মসজিদ এবং মাওঃ মনজুর এলাহী ।

বিভিন্ন দেশের প্রতিযোগীদের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে মাধুর্য্যময় কন্ঠে কোরআন তেলাওয়াত এ চ্যাম্পিয়ন হয় ইন্দোনেশিয়ার প্রতিযোগি হাফেজ আব্দুস সালাম।১ম রানার্স আপ হোন বাংলাদেশি মোঃ হাসনাইন ও ২য় রানার্স আপ নির্বাচিত হন বাংলাদেশি মোজাম্মেল হক। ইসলামি সংগীত প্রতিযোগিতা চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশের হাসান মজুমদার , ১ম রানার্স আপ হন বাংলাদেশি আল মাহবুব ও ২য় রানার্স আপ নির্বাচিত হন বাংলাদেশি মোঃআল মামুন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান আব্দুর রহমান লি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়া থেকে রেমিটেন্স পাঠানোর জনপ্রিয় মাধ্যম হানপাস এর কান্ট্রি ম্যানেজার জনাব স্বপন বাড়ৈ , ইনছন সিটির বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ভিক্টোরি ট্রাভেলস এর স্বত্বাধিকারী জনাব শামীম আল মামুন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য সামাজিক সংগঠন ও বিভিন্ন কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ।

ইসো ও ইন্দোনেশিয়া কমিউনিটির যৌথ আয়োজনে সর্বস্তরের মুসলিম ভাই বোনদের সমন্বয়ে ইফতার মাহফিলে প্রায় এক হাজার লোকের সমাগম হয়। ইফতার মাহফিলে বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগ দেন সৌদি আরব , ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত ও কর্মকর্তাবৃন্দ।

উল্লেখ্য যে, অনুষ্ঠানটির পৃষ্ঠপোষকতায় ছিলো ইসোর অফিসিয়াল স্পন্সর হানপাস রেমিটেন্স,হ্যাপি স্টার ফুড এন্ড ট্রাভেলস,এস.এম.ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস,ভিক্টোরি ট্রাভেলস, বিজিএল শিপিং এন্ড এয়ার কার্গো ট্রান্সপোর্ট।

অনুষ্ঠান সফল করার জন্য ইসো কমিটির পক্ষ থেকে সকলকে ধন্যবাদ জানানো হয়।

আমিনুল মোগল, সাধারন সম্পাদক ইসো,দ:কোরিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*