এই ছেলেটির অপরাধটা কি? কেন সে বঞ্চিত ?

বিডিনিউজ প্রতিদিন:

এই ছেলেটির অপরাধটা কি? কেন সে বঞ্চিত?

ছবির ছেলেটির নাম Murad Hyder Tipu

২০০৮-০৯ শিক্ষাবর্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে প্রথম থেকেই চবি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে মেহরাজ সম্রাট (ততকালীন কমিটির সদস্য, চবি ছাত্রলীগ), Mohammad Tanjim Hossain (ততকালীন ছাত্রলীগ নেতা, নেত্রীর মুক্তি আন্দোলন করে সারাদেশের সর্বকনিষ্ঠ আসামী, পরবর্তীতে যুগ্ম সম্পাদক, চবি), Saifuddin Mahmud Rumon (ততকালীন ছাত্রলীগ নেতা), আমি (ততকালীন ছাত্রলীগ কর্মী, পরবর্তীতে সহ সভাপতি, চবি ছাত্রলীগ), Raufur Rahaman Rathno (পরবর্তীতে যুগ্ম সম্পাদক, চবি ছাত্রলীগ), Ahsanul Karim Jony (পরবর্তীতে সহ সভাপতি, চবি ছাত্রলীগ) এর নেতৃত্বে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহন করে। সেই সময়ও শিবিরের রক্ত চক্ষু উপেক্ষা করে চবি ছাত্রলীগ করা কতটা ঝুকিপূর্ণ ছিলো তা যারা ২০১৩-২০১৪ পর্যন্ত চবি ছাত্রলীগ করেছে তারা খুব ভালো করে টের পেয়েছে। আর সেই খারাপ সময়েও এই ছেলেটি আমাদের কর্মী, ছোট ভাই হিসেবে কাধে কাধ মিলিয়ে শিবিরের সাথে লড়াইতে ছিলো।

পরের বছর অর্থাৎ ২০০৯-২০১০ শিক্ষাবর্ষে সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চলে যায় এবং সেখানেও সক্রিয়ভাবে ছাত্রলীগের রাজনীতি করে যায়। যার পুরষ্কার হিসাবে সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্জেন্ট জহুরুল হক হল ছাত্রলীগের সদস্য, পরবর্তীতে সেই হলেরই যুগ্ম সাধারন সম্পাদক হিসাবে এবং সর্বশেষ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কর্মসূচী ও পরিকল্পনা বিষয়ক উপ সম্পাদকের দায়িত্ব পায় এবং সততার সাথে পালন করে।

তার বাড়ী বাঞ্চারামপুর, ব্রাহ্মনবাড়িয়া
তার বাবা শওকত আলী একজন বীর মুক্তি যোদ্ধা
তার মা জনাবা সাকিনা বেগম, বর্তমানে রুপসদি ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতির দায়িত্বে আছেন এবং জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের একজন কর্মী

তার বিরুদ্ধে বিবাহিত, টেন্ডারবাজ, মাদকসেবী, মাদক ব্যবসায়ী, বহিষ্কার, শিক্ষকের সাথে অসদাচরন, নারী কেলেংকারী, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী কর্মকান্ড, জামাত বিএনপি পরিবারের সন্তান এমন কোন অভিযোগই নেই।

ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি-সাধারন সম্পাদকের কাছে প্রশ্ন, এসব কোন অভিযোগ না থাকা সত্ত্বেও শিবিরের সাথে প্রত্যক্ষ যুদ্ধ করে আসা এবং নিয়মিত রাজনীতি করা এই ছেলেটিকে কোন অপরাধে বঞ্চিত করা হলো? তার অযোগ্যতাটা কোথায়। টিপু, জহিরের মত কয়টা ছেলে আপনাদের কমিটিতে আছে যারা আসলে শিবিরের সাথে যুদ্ধ করেছে? কেন এই ছেলেটাকে তার প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করলেন? কি দোষ ছিলো তার? বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবেন আসলে কেন তাকে বাদ দেয়া হয়েছে? যেখানে উপরোক্ত অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও কত কত ছেলেকে আপনারা জায়গা দিলেন, সেখানে ওর মত ভদ্র, নম্র, সৎ, নীরব সংগঠন প্রেমী একটা ছেলেকে এভাবে বঞ্চিত করলেন কোন অপরাধে? আল্লাহ আপনাদের এই অন্যায়ের বিচার অবশ্যই করবে।

লেখক-
Mohammad Saifuddin Khaled ভাই
সাবেক সহ-সভাপতি, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*