দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত উদ্যোক্তা বিষয়ক প্রশিক্ষণ ২০১৮

বিশেষ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ প্রতিদিনঃ গতকাল রবিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ‘দেশ ও মানবতার কল্যাণে আমরা সবাই এক সাথে’ এই শ্লোগানকে বুকে ধারণ করে গড়ে উঠা দঃ কোরিয়া প্রবাসী বাংলাদেশীদের জনপ্রিয় সংগঠন  ইপিএস কোরিয়া বাংলা কমিউনিটি -ইকেবিসির আয়োজনে কোরিয়া প্রোডাক্টিভিটি সেন্টার – কেপিসি ও তালহা ট্রেনিং সেন্টারের সহযোগিতায় ‘উদ্যোক্তা বিষয়ক  প্রশিক্ষণ ২০১৮ দিন ব্যাপী এক কর্মশালা কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয় কেপিসি’র হল রুমে।

সকালে প্রশিক্ষন কোর্সের উদ্বোধন করেন কোরিয়া প্রোডাক্টিভিটি সেন্টারের প্রেসিডেন্ট পার্ক লী। প্রশিক্ষণকোর্স অনুষ্ঠান পরিচালনা করেছেন রাইসুল ইসলাম রাসেল, প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন তালহা ট্রেনিং এর কো-ফাউন্ডার ও সিইও মোঃ শফিউল আলম।

এই প্রশিক্ষণে ৪৬ জন তরুণ উদ্যোক্তা অংশ গ্রহণ করেছেন। এর আগে গত পহেলা সেপ্টেম্বর শনিবার ‘আপনার সাফল্যই দেশের উন্নতি’ সামনে রেখে প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করার জন্য একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে ইকেবিসির অফিশিয়াল পেইজে। যেখানে প্রাথমিক রেজিস্ট্রেশন করেন প্রায় ৫০০ জন তরুণ উদ্যোক্তা। যাদেরকে বাচাইকরণের মাধ্যমে প্রশিক্ষণে স্থান দেয়া হয়। দঃ কোরিয়ায় দ্বিতীয় বারের মত ইকেবিসি এ ব্যাতিক্রম ধর্মী প্রশিক্ষণ কোর্সের আয়োজন করেছে।

এই ট্রেনিং কার্যক্রম গতানুগতিক ধারার বাইরে , স্টার্ট আপ ইয়োর বিজনেস ভিত্তিক প্রশিক্ষন। এতে সর্বাধুনিক ব্যবসা প্রসারের কারিকুলাম অনুসরন করে নেটওয়ার্কিং, আইস ব্রেকিং, বিজনেস প্ল্যান, বিজনেস লার্নিং উইথ প্লে এন্ড গেমিং পদ্ধতিতে উদ্যোক্তাদের উজ্জীবিত করা হয়। এতে বৃহৎ সম্প্রসারন পদ্ধতির মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। একজন উদোক্তা ব্যবসা শুরু করার জন্য কি কি করতে পারেন, কিভাবে বাজার সম্পর্কে বুঝবেন, কি পণ্য উদপাদন করবেন, খরচ, কাঁচামাল, বাজারজাতকরণ, বাজার সম্প্রসারণ, নিত্য নতুন পণ্য তৈরী, রপ্তানী বৃদ্ধি, দেশ বিদেশের বাজার সম্প্রসারণ, ঝুঁকি এবং উদ্যোক্তা কিভাবে সফল হতে পারে, কেন মানুষ ব্যবসায় ব্যর্থ হয়, কি ফর্মুলা অনুসরন করলে ব্যবসায় সফল হওয়া যায়, কিভাবে কোরিয়ায় ব্যবসায়িক ভিসা করা যায়, কোরিয়া ও বাংলাদেশের ব্যবসার পদ্ধতি কি প্রভৃতি বিষয় সম্পর্কে ধারনা দেয়া হয়।

বিরতির পর বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে প্রশিক্ষক হিসেবে বিসিকের সাবেক সভাপতি সফল ব্যবসায়ী আবু বক্কর সিদ্দিক রানা বলেন, কিছু উদ্যোক্তা আছে যারা সাহসের সাথে ব্যবসায় ঝুকি নিয়ে সফলতা অর্জন করেন। যারা সমুদ্রে ঝাঁপ দিয়ে সাতার কেটে তীরে উঠতে পারবেন তারাই সফল হবেন। এখন আপনারা সবাই তরুণ; এই সময়টুকু অবহেলায় না কাটিয়ে জীবন যুদ্ধে জয়ী হতে ঝাপিয়ে পড়ুন, দেখবেন সফলতা দরজায় এসে কারা নাড়ছে।

ইকেবিসির সাধারণ সম্পাদক রাসেল বলেন, সমপ্রতি সিউলস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস যে  এওয়ার্ড প্রদান করার ঘোষণা দিয়েছেন তাতে আমরা প্রবাসীরা খুবই আনন্দিত। কিন্তু ই-৭ ভিসা ক্যাটাগরির সাথে এফ-২(৬) ভিসাধারীদের অন্তর্ভুক্তি করা খুবই জরুরী। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনগুলোকে  এওয়ার্ড’র আওতায় আনার দাবি জানাই। তিনি আরো বলেন, প্রায় ৫০০ জন তরুণ উদ্যোক্তাদের মধ্যে আপনার যারা সুযোগ পেয়েছেন তারা নিশ্চয়ই ভাগ্যবান। অতিশীঘ্রই বাদপরাদেরকে এই প্রশিক্ষণটি যাতে করতে পারে সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনা করে ব্যবস্থা করার চেষ্টা করবো।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুকিমা বেগম, প্রথম সচিব (শ্রম),বাংলাদেশ দূতাবাস। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন কোরিয়া(বিসিকে)’র নবনির্বাচিত সভাপতি আরশাদ আলম ভিকি, সাধারণ সম্পাদক শিশির আহমেদ। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, ইকেবিসির প্রধান উপদেষ্টা মোঃ জুয়েল আহমেদ মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক রাইসুল ইসলাম রাসেল প্রমুখ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কেপিসির প্রেসিডেন্ট পার্ক লী।

প্রশিক্ষণে তরুণ উদ্যোক্তাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লেখক, সাংবাদিক ওমর ফারুক হিমেল ও মাহবুবুর রহমান। উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকারীদের মধ্যে ছিলেন কোরিয়ায় অধ্যয়নরত বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী,  রেমিটেন্স যোদ্ধা ইপিএসকর্মীসহ নানা পেশার ব্যক্তিরা।

অনুষ্ঠানে স্পন্সর হিসেবে ছিলেন প্রাইম ট্রাভেল ও এনএসটি লিংক। মিডিয়া পার্টনার কিউ টিভি ও বিডিনিউজ প্রতিদিন। সহযোগিতায় ছিলেন তালহা ট্রেনিং ও কেপিসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*