প্রাইম ট্রাভেলস এর সাথে জিএমই রেমিটেন্স’র চুক্তি স্বাক্ষর

বিডিনিউজ প্রতিদিনঃ সিউলের ইথেওনে অবস্থিত জনপ্রিয় ট্রাভেল এজেন্সি প্রাইম ট্রাভেল এর সাথে অনুষ্ঠিত হল কোরিয়ার সর্বপ্রথম ও সবচেয়ে বড় নন-ব্যাংকিং রেমিটেন্স সার্ভিস জিএমই রেমিটেন্স এর চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান। চুক্তি অনুযায়ী সুপরিচিত ট্রাভেল এজেন্সিটি এখন প্রাইম ট্রাভেল এর পাশাপাশি পরিচিতি লাভ করবে জিএমই সেন্টার হিসেবে। কোরিয়া প্রবাসীরা এখান থেকে জিএমই রেমিটেন্সে রেজিস্টার করার পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রেমিটেন্স পাঠাতে পারবেন সহজেই। সেই সাথে থাকবে সর্বোচ্চ গ্রাহক সেবা।

জিএমই রেমিটেন্স কোরিয়ার সরকার কর্তৃক স্বীকৃত প্রথম নন-ব্যাংকিং পদ্ধতিতে রেমিটেন্স প্রেরণকারী প্রতিষ্ঠান। যেটি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রেমিটেন্স পাঠিয়ে থাকে। বিগত দিনে প্রতিষ্ঠানটি পাঁচটি ব্রাঞ্চ এর মাধ্যমে সেবা দিয়ে আসলেও প্রাইম ট্রাভেল এর সাথে চুক্তি স্বাক্ষরের ফলে এই প্রথম চালু হল জিএমই সেন্টার, যেটিতে ব্রাঞ্চ এর মতই সকল কার্যক্রম সম্পন্ন হবে অর্থাৎ গ্রাহকদেরকে রেজিস্ট্রার করার পাশাপাশি রেমিটেন্স পাঠাতে প্রয়োজনীয় সহায়তা করা হবে।

আজ শুক্রবার সিউলের দুংদেমুনে জিএমই রেমিটেন্স এর প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান। চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন জিএমই রেমিটেন্স এর সিইও মি: জন এবং প্রাইম ট্রাভেল এর সিইও আবুবকর সিদ্দিক রানা। সর্বোচ্চ গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করতে আরও বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ ও অচিরেই এশিয়া মহাদেশের প্রধান রেমিটেন্স কোম্পানি হিসেবে আবির্ভূত হওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন জিএমই রেমিটেন্স এর সিইও মি: জন। প্রাইম গ্রুপ এর প্রতিষ্ঠাতা আবুবকর সিদ্দিক রানা তার বক্তব্যে বলেন, ইথেওন জিএমই সেন্টার এর মাধ্যমে কোরিয়া প্রবাসীরা তাদের কষ্টার্জিত অর্থ সহজেই নিজ দেশে প্রেরণে প্রাইম ট্রাভেলস সর্বাত্মক সহায়তা করবে।জিএমই আইডি রেজিস্ট্রার করতে রেফারেন্স এর স্থানে PRIME  লিখে রেজিস্ট্রার সম্পন্ন করুন। যেকোনো প্রয়োজনে ইথেওন শাখার  প্রাইম জিএমই সেন্টারের নাম্বারে যোগাযোগ করুন।টেলিফোনঃ ০২-৬৭৩৯-৩৫৭১ মোবাইলঃ ০১০-৩২০২-৭৭৪৬। এছাড়াও প্রাইম ট্রাভেলসের এয়ার টিকেট, মানি এক্সচেঞ্জ , গ্রাউন্ড ট্যুর সেবাতো থাকছেই ।

প্রাইম জিএমই সেন্টারের সবচেয়ে বড় সুবিধা রেজিস্ট্রার করতে আপনার ব্যাংক একাউন্টটি এলিয়েন কার্ড দিয়ে করা থাকতে হবে এমনকোন বাধ্যবাধকতা নেই,পাসপোর্ট দিয়ে করা থাকলেও সমস্যা নেই এবং রেজিস্টার করতে এলিয়েন কার্ড,পাসপোর্ট,কোরিয়ান ন্যাশনাল আইডি কার্ড এর যেকোন একটি ব্যবহার করলেই চলে।

আমাদের এপস ব্যবহার করে আপনি ঘরে বসে নিজেই বাংলাদেশ এর যেকোনো ব্যাংক এর যেকোনো শাখায় ডিপোজিট করতে পারবেন।১০ মিনিট এর মধ্যে ক্যাশ টাকা পাঠাতে পারবেন এবং বিকাশ করতে পারবেন।একটি ট্রানজেকশনে ১০ হাজার উয়ন থেকে ৩০ লাখ উয়ন পর্যন্ত ও ১ বছর অর্থাৎ জানুয়ারী থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ২০,০০০ ডলার পাঠাতে পারবেন।প্রতি ট্রানজেকশনে সার্ভিস চার্জ মাত্র ৫ হাজার উওন। রেজিস্টার হয়ে গেলে Play store এবং Apps store থেকে ইন্সটল করুন GME Remittance। তারপর ID আর Password দিয়ে Log in করুন।

যেভাবে টাকা পাঠাবেনঃ তিনভাবে টাকা পাঠানো যায়,

১ ক্যাশ পিকআপ- লিস্ট থেকে ব্যাংকে সিলেক্ট করুন ।যাকে পাঠাবেন তার বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্রের সাথে মিল রেখে নাম টাইপ করুন ও তার মোবাইল নাম্বার দিন।সাথে সাথেই মোবাইল এ একটি পিনকোড পাবে।মোবাইল নাম্বারে প্রাপ্ত পিনকোড ও জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে ১০ মিনিট এর ভিতর টাকা তোলা যাবে ।

২ ব্যাঙ্ক ডিপোজিট- বাংলাদেশ এর যেকোন ব্যাংক এর যেকোনো একাউন্ট এ টাকা পাঠানো যায় ।

৩ বিকাশ-বিকাশ নাম্বার এর আগে কান্ট্রি কোড ৮৮ দিন ও রিসিভারের নামের জায়গায় বিকাশ একাউন্ট রেজিস্টার করতে ব্যবহৃত নাম সঠিকভাবে টাইপ করুন।

(এখানে পিসি ভার্সনে দেখানো হয়েছে।মোবাইলে GME Remittance এর অ্যাপসেও ঠিক একই ভাবে করতে পারবেন)

লিংক ঃ জিএমই আইডি রেজিস্টার করতে এই লিংকে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*